বাংলাদেশ রেশম উন্নয়ন বোর্ড গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২nd জুন ২০১৮

বাংলাদেশ রেশম উন্নয়ন বোর্ড এর চলমান প্রকল্পের তালিকা

 

ক্রমিক নং

প্রকল্পের নাম ও মেয়াদকাল

প্রাক্কলিত ব্যয়

প্রকল্প এলাকা

মুল কার্যক্রম

 বাংলাদেশে রেশম শিল্পের সমপ্রসারণ ও উন্নয়নের জন্য সমন্বিত পরিকল্পনা। (জুলাই,২০১৩-জুন ২০১৮)

৩৩৮৬ লক্ষ টাকা

প্রকল্পটি ২০১৩ সালে মন্ত্রণালয়ে কর্তৃক অনুমোদিত হয়েছে। প্রকল্পের বাস্তবায়ন অগ্রগতি

আর্থিক : ৭৪.৩৩%

 বাস্তব : ৮৩%

চলতি ২০১৭- ১৮ অর্থ বছরে এডিপি বরাদ্দ ৮০০.০০ লক্ষ টাকা। ফেব্রুয়ারি/২০১৮ পর্যন্ত ব্যায় : ২৭৯.৪৪ লক্ষ টাকা।

সমগ্র বাংলাদেশ

  • বীজাগারে ৩৮০বিঘা তুঁতজমির উন্নয়ন ও রক্ষনাবেক্ষন
  • ১৩.০০ লক্ষ রোগমুক্ত রেশম ডিম উৎপাদন ও বিতরণ
  • ১১.০০ লক্ষ তুঁতচারা উৎপাদন ও বিতরণ
  • ১৫টি আইডিয়াল পল্লী স্থাপন
  • ৩০০টি তুঁতব্লক স্থাপন
  • ২০.০০০ কেজি রেশমগুটি ক্রয়
  • ২০০০ জন চাষীকে পলুপালন সামগ্রী (ডালা চন্দ্রকী,নেট) সরবরাহ
  • ২০০০ জন চাষীকে তুঁতচারা রোপন সহায়তা প্রদান
  • ২৮৮০ জনকে তুঁতচাষ, পলুপালন ও রিলিং বিষয়ে প্রশিক্ষন প্রদান
  • চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেশম বীজাগারে একটি দ্বিতল পলুপালন ভবন নির্মাণ  এবং রংপুর রেশম বীজাগারে আঞ্চলিক কার্যালয় কাম-প্রশিক্ষণ ভবন নির্মাণ।
  • ভোলাহাট, মিরগঞ্জ, ঈশ্বরদী বীজাগারে ৩টি স্পিনিং শেড নির্মাণ।   
  • উৎপাদিত রেশম গুটি বাজারজাতকরণে সহায়তা প্রদান ও গ্রামীণ দরিদ্র জনগোষ্ঠির কর্মসংসহানের সুযোগ সৃষ্টিকরণ।

রেশম চাষ সম্প্রসারণ ও উন্নয়নের মাধ্যমে পার্বত্য চট্রগ্রাম জেলা সমূহের দারিদ্র বিমোচন ( জুলাই-২০১৭ হইতে জুন-২০২২ পর্যন্ত)

 

২৫০৭.০০লক্ষ টাকা

পার্বত্য ৩ জেলার ১৭টি উপজেলা

  • বীজাগারে ৪০বিঘা তুঁতজমির উন্নয়ন ও রক্ষনাবেক্ষন
  • ৩.০০ লক্ষ রোগমুক্ত রেশম ডিম উৎপাদন ও বিতরণ
  • ৬.০০ লক্ষ তুঁতচারা উৎপাদন ও বিতরণ
  • ১০টি আইডিয়াল পল্লী স্থাপন
  • ১০০টি তুঁতব্লক স্থাপন
  • ২০.০০০ কেজি রেশমগুটি ক্রয়
  • ১৪০০ জন চাষীকে পলুপালন সামগ্রী (ডালা চন্দ্রকী,নেট) সরবরাহ
  • ১৪০০ জন চাষীকে তুঁতচারা রোপন সহায়তা প্রদান
  • ১৪৫০ জনকে তুঁতচাষ, পলুপালন ও রিলিং বিষয়ে প্রশিক্ষন প্রদান
  • ০৬টি  চাকি রেয়ারিং কাম-প্রদশর্নী কেন্দ্র এবং ১টি সিল্ক রিলিং উইভিং ট্রেনিং সেন্টার নির্মাণ

সরকারী আর্থিক সহায়তার উপর নির্ভরশীলতা হ্রাস করে রেশম চাষের মাধ্যমে ৩টি পার্বত্য জেলার দরিদ্র উপজাতি ও অ-উপজাতি জনগোষ্ঠিকে স্বাবলম্বী করে তোলা ।


Share with :

Facebook Facebook