বাংলাদেশ রেশম উন্নয়ন বোর্ড গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৫ জুন ২০১৫

মিনিফিলেচার-কেন্দ্রসমূহে-উৎপাদিত-রেশম-সুতার-গুনগতমান-উন্নীতকরণে-বিদ্যমান-সমস্যা-ও-উত্তোরণের-উপায়


প্রকাশন তারিখ : 2015-06-22

মিনিফিলেচার কেন্দ্রসমূহে উৎপাদিত রেশম সুতার গুনগতমান উন্নীতকরণে বিদ্যমান সমস্যা ও উত্তোরণের উপায়  

 

রাজশাহী/২১-০৬-১৫          

উন্নত মানের গুটি উৎপাদন করা, ¸গুণগত মানের রেশম সুতা উৎপাদনের লক্ষ্যে গুণগত মানের উচ্চ ফলনশীল রেশম গুটির উৎপাদন করার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ রেশম গবেষণান ও প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউট হতে আরো উচ্চ ফলনশীল লাগসই রেশম জাত ও প্রযুক্তি উদ্ভাবন করা, গুটি রিলিং করার সময় যথাযথভাবে কারিগরি দিক অনুসরণ করা, বিদ্যমান মেশিনের সংস্কার করাসহ প্রয়োজনিয় দ্রব্যাদি সংরক্ষণে থাকা রেশম গুটি বাছাই করে অপসারণ করা, গুটি সিদ্ধকরণের সময় তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখা, উন্নত মানের রিলিং মেশিন ব্যবহার নিশ্চিত করা, রিলিং এর অনুকুল পরিবেশ সৃষ্টি করা, শ্রমিকদের মজুরী বৃদ্ধি এবং দক্ষ জনবল গড়ে তোলা, প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা  গ্রহণ করা, যেসব এলাকায় ভাল মানের সুতা উৎপাদন হচ্ছে তা অনুসরন, চাষীদের গুটির ন্যায্য দাম নিশ্চিতকরণ, প্রয়োজনে বেসরকারী পর্যায়ে উদ্যোক্তা সৃষ্টি করা, চারটি বন্দে সুপারভিশন জোরদারকরণ  এবং রেশম চাষের প্রতিটি পর্যায়ে সকলের মনোযোগ প্রদান ইত্যাদি বিষয় নিশ্চিত করে রেশম সুতার গুনগতমান বৃদ্ধি করা সম্ভব বলে  ‍‍‌‌‌মিনিফিলেচার কেন্দ্রসমূহে উৎপাদিত রেশম সুতার গুনগতমান উন্নীতকরণে বিদ্যমান সমস্যা ও উত্তোরণের উপায়  শীর্ষক কর্মশালায় বক্তারা সুপারিশ করেন।

          আজ ২১/০৬/২০১৫ খ্রি: তারিখে সকাল ১০.০০টায় বাংলাদেশ রেশম উন্নয়ন বোর্ডের নিয়ণ্ত্রণাধীন বাংলাদেশ সিল্ক ফাউন্তেশনের আয়োজনে বোর্ডের সম্মেলন কক্ষে মহাব্যবস্থাপক, বাংলাদেশ সিল্ক ফাউন্তেশন মো: নাসির উদ্দিন এর সভাপতিত্বে একটি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। সভাপতির বক্তব্যে তিনি সুতার মান উন্নত করার জন্য প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা গ্রহণ সহ পর্যবেক্ষণ জোড়দার করার উপর গুরুত্ব দেন। কর্মশালায় রেশম শিল্পের বর্তমান অবস্থা থেকে উত্তোরনের লক্ষ্যে উন্নত মানের সুতা উৎপাদনে করনীয় বিষয়ে বিভিন্ন সমস্যা ও সমাধানের উপায় গুলি চিহ্নিত করা হয়। উক্ত কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আনিস-উল-হক ভূইয়া, মহাপরিচালক, বাংলাদেশ রেশম উন্নয়ন বোর্ড  বলেন, গুনগত মানের রেশম সুতা উৎপাদনের প্রথম শর্তই হচ্ছে গুনগত মানের উচ্চ ফলনশীল রেশম গুটি উৎপাদন। রেশম সুতার মান উন্নয়নের জন্য কর্মশালায় উত্থাপিত সমস্যা গুলির সমাধান করে অতিসত্তর এর কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। এজন্য কর্মশালায় সুপারিশকৃত কারিগরি কার্যক্রম অত্যান্ত দক্ষতার সাথে পরিচালনাসহ সকলকে নিজ নিজ জায়গা থেকে দায়িত্ব পালন করে যেতে হবে। রেশমের সাথে সম্পৃক্ত সকলকে একসাথে কাজ করতে হবে। তিনি আরোও বলেন, সুতার মান নিশ্চিত করতে হবে, কর্মকর্তাদের মাঠ পর্যায়ে কাজ করতে হবে, মাঠ পর্যায়ে জড়িতদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে, প্রয়োজনে দায়ীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

কোরআন থেকে তেলওয়াত এর মধ্য দিয়ে কর্মশালার প্রথম পর্ব শুরু হয়। কর্মশালায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য প্রদান করেন মো: জামালউদ্দিন শাহ, পরিচালক, বাংলাদেশ রেশম গবেষনা ও প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউট, মো: জায়েদুল ইসলাম সচিব, রেশম শিল্প মালিক সমিতির সভাপতি মো: লিয়াকত আলী, প্রধান উৎপাদন ও বিপণন কর্মকর্তা মো: মাহবুবুর রহমান, সিবিএ সভাপতি মো: আবু সেলিম সহ বোর্ডের এবং মাঠ পর্যায় থেকে আগত বিভিন্ন কর্মকতা।  মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন মো: আবু তাহের সরদার, উপ-প্রধান উৎপাদন ও বিপণন কর্মকর্তা।

কর্মশালায় মাঠ পর্যায় থেকে আগত সরাসরি যারা সুতা উৎপাদনের সাথে জড়িত তাদের মধ্যে রিলার, দক্ষ রিলার, উইভার এবং টেকনিক্যাল অফিসার উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া সদস্য(সম্প্রসারণ ও প্রেষণা) মো: সেরাজুল ইসলাম, সিনিয়র রিসার্চ অফিসার মো: সাইদুর রহমানসহ নবগঠিত রেশম উন্নয়ন বোর্ডের বোর্ড প্রধান কার্যালয়ের এবং মাঠ পর্যায়ের বিভিন্ন জেলার কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।


Share with :

Facebook Facebook